পদার্থ কাকে বলে । বৈশিষ্ট্য; মৌলিক ও যৌগিক পদার্থ

পদার্থ কাকে বলে

আমাদের চারপাশে বিভিন্ন জিনিস রয়েছে (যেমন: চেয়ার, টেবিল, মাটি, পানি, বাতাস, লোহা ইত্যাদি)। সবকিছুই পদার্থ দিয়ে তৈরি। যে জিনিস স্থান দখল করে, ওজন, আকার ও আকৃতি আছে এবং বল প্রয়োগে বাধা প্রদান করে করে তাকে পদার্থ বলে।

পদার্থের প্রকার/শ্রেণীবিভাগ

অবস্থার উপর নির্ভর করে পদার্থকে ৩ ভাগে ভাগ করা যায়। যথা:-
আইফোন ১৪’ প্রো ম্যাক্স। (apple iphone 14 pro max)
পৃথিবীতে কয়টি দেশ আছে। জানুন মোট দেশের সংখ্যা
আমেরিকা ১ টাকা বাংলাদেশের কত টাকা জেনে নিন
বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি কে ছিলেন
মৌলিক সংখ্যা কাকে বলে। মৌলিক সংখ্যা কতটি
পৃথিবীতে সবচেয়ে ভালো মানুষ কে

কঠিন পদার্থ
তরল পদার্থ
গ্যাসীয় বা বায়ুবীয় পদার্থ

কঠিন পদার্থ

যে পদার্থের একটি নির্দিষ্ট আকৃতি ও আয়তন আছে এবং স্বাভাবিক অবস্থায় তার আকৃতি ও আয়তনের কোনো পরিবর্তন হয় না তাকে কঠিন বলে। যেমন- লোহা, ইট, পাথর, কাঠ ইত্যাদি।

কঠিন পদার্থের বৈশিষ্ট্য

নির্দিষ্ট আকার বা আকৃতি আছে।
ওজন আছে
স্থান দখল করে।
তাপ তা প্রসারিত করে।
বল প্রয়োগ বাধা সৃষ্টি করে।
কিছু কঠিন পদার্থ আছে যাদেরকে উত্তপ্ত করলে, তখন তারা তরলে পরিণত না হয়ে সরাসরি বাষ্পে পরিণত হয়। যেমন- ন্যাপথালিন।

তরল পদার্থ

যে পদার্থের নির্দিষ্ট আয়তন আছে কিন্তু কোন আকৃতি নেই এবং যে পাত্রে রাখা হয় সেই পাত্রের আকার ধারণ করে তাকে তরল বলে। যেমন- জল, তেল, দুধ ইত্যাদি।

তরল বৈশিষ্ট্য

তরলের আয়তন আছে কিন্তু আকৃতি নেই।
ওজন আছে
স্থান দখল করে।
যে পাত্রে এটি রাখা হয় সেই পাত্রে আকার ধারণ করে।
নিচের দিকে গড়িয়ে পড়ে।

গ্যাসীয় / বায়বীয় পদার্থ

যে সকল পদার্থের নির্দিষ্ট আকার ও আয়তন নেই তাদেরকে গ্যাসীয় / বায়বীয় পদার্থ বলে।

পদার্থ কাকে বলে
পদার্থ কাকে বলে

বায়বীয় / বায়বীয় পদার্থের বৈশিষ্ট্য

এই পদার্থের কোন আকার এবং আয়তন নেই।
ওজন আছে
স্থান দখল করে।
ঠান্ডা হলে এটি তরলে পরিণত হয়।

উৎপাদন অনুসারে পদার্থ ২ ধরণের যেমনঃ

মৌলিক পদার্থ
যৌগিক পদার্থ

মৌলিক পদার্থ

যেসব বিশুদ্ধ পদার্থ তাদের মৌলিক বৈশিষ্ট্য অক্ষুণ্ন রেখে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারে তাদেরকে মৌলিক পদার্থ বলে।
অথবা
যে সকল পদার্থকে ভাঙ্গলে ঐ পদার্থ ছাড়া আার অন্য কোণ পদার্থ পাওয়া যায় না তাকে মৌলিক পদার্থ বলে। যেমন- সোনা, রূপা, অক্সিজেন ইত্যাদি।

এখন পর্যন্ত মোট ১১৮ টি মৌলিক পদার্থ শনাক্ত করা হয়েছে, যার মধ্যে ৯৮টি প্রকৃতিতে পাওয়া যায় এবং বাকি ২০টি ল্যাবরেটরিতে কৃত্রিমভাবে তৈরি করা হয়ছে।

যৌগিক পদার্থ

যে সকল পদার্থকে ভাঙ্গলে দুই বা ততোধিক মৌলিক পদার্থ পাওয়া যায় তাদের যৌগিক পদার্থ বলে। যেমন- পানি, লবণ, বাতাস ইত্যাদি। পৃথিবীতে অসংখ্য যৌগিক পদার্থ রয়েছে।

মৌলিক পদার্থ কাকে বলে’
কঠিন পদার্থ কাকে বলে’
তরল পদার্থ কাকে বলে’
বায়বীয় পদার্থ কাকে বলে’
উদ্বায়ী পদার্থ’ কাকে বলে
যৌগিক পদার্থ’ কাকে বলে

নববহ্নি

ঈদ মোবারক স্ট্যাটাস ২০২২। ঈদের শুভচ্ছা স্ট্যাটাস
ভাষা কাকে বলে। ভাষা কত প্রকার ও কি কি

Check Also

পরিসংখ্যান কাকে বলে

পরিসংখ্যান কাকে বলে। এর বৈশিষ্ট্য ও শাখা

পরিসংখ্যান কাকে বলে একটি “ঘটনা” সম্পর্কে সংখ্যাসূচক তথ্যকে পরিসংখ্যান বলা হয়। যে সংখ্যার মাধ্যমে পরিসংখ্যানে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *