মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত ও কিভাবে পড়তে হয়

Table of Contents

মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত

পৃথিবীতে সবচেয়ে ভালো মানুষ কে

ইসলাম শান্তির ধর্ম ইসলাম পাঁচটি স্তম্ভের উপর প্রতিষ্ঠিত। সেগুলো হলো কালেমা, নামাজ, রোজা, হজ ও যাকাত। এই পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে নামাজ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। নামাজ ফরজ ইবাদত।

মুসলমানরা দিনে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করে আল্লাহর কাছে আত্মনিবেদন করে। নামাজ শব্দটি সরাসরি কুরআনে ৮২ বার উল্লেখ করা হয়েছে। নামাজের মাধ্যমেই একজন মুসলমান পাপ কাজ থেকে বিরত থাকতে সক্ষম হয়। সুতরাং এটি দেখায় যে নামাজ কতটা গুরুত্বপূর্ণ। মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত

মুসলমানরা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে, যেমন ফজর, যোহর, আসর, মাগরিব এবং এশা। আজকের পোস্টে মাগরিবের নামাজ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আশা করি এই লেখার মাধ্যমে মাগরিবের নামাজ সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারবেন।
আসরের নামাজ কয় রাকাত ও কিভাবে পড়তে হয়
মাগরিবের নামাজ মোট সাত রাকাত। প্রথমে তিন রাকাত ফরজ ও তারপর দুই রাকাত সুন্নত ও দুই রাকাত নফল নামাজ সহ মোট সাত রাকাত নামাজ পড়তে হয়। মাগরিবের নামজের সময় খুবই অল্প।সূর্য অস্ত যাওয়ার পর থেকে পশ্চিম আকাশে লাল আভা পর্যন্ত মাগরিবের নামাজের সময় থাকে।
মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত
যোহরের নামাজ কয় রাকাত ও কিভাবে পড়তে হয়

এশার নামাজ কয় রাকাত ও কিভাবে পড়তে হয় জানুন রিস্তারিত

মাগরিবের নামাজ পড়ার নিয়মঃ

মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত
মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত

মাগরিবের তিন রাকাত ফরজঃ

জামাতে এ দাড়িয়ে নামায শুরু করতে হবে। মাগরিবের তিন রাকাত ফরজের জন্য আল্লাহু আকবার বলে কোমরে হাত বাঁধতে হবে। মহিলাদের জন্য বুকে হাত বাঁধতে হবে । নিয়ত শেষ হলে সানা পড়তে হবে। অতঃপর সাথে সূরা ফাতিহার সাথে অন্য কোন সূরা পড়তে হবে। সুবহানা রাব্বিয়াল আযীম যে কোন বেজোড় সংখ্যক বার পাঠ করতে হবে। তারপর সামিয়া লিমান হামিদা রাব্বানা লাকাল হামদ বলে সাজদাহ বলতে হবে। সাজদায় গিয়ে যে কোনো বিজোড় সংখ্যক বার সুবহানা রাব্বিয়াল আলা বলতে হবে।
ফজরের নামাজ কয় রাকাত ও পড়ার নিয়ম

আল্লাহু আকবার বলে আবার একইভাবে সেজদা করা। তারপর দ্বিতীয় রাকাত শুরু করতে হবে। এভাবে কোমরে হাত রেখে (মহিলাদের জন্য বুকে হাত বাঁধতে হবে) সূরা ফাতিহার সাথে অন্য কোন সূরা পড়তে হবে। এভাবে একই পদ্ধতিতে নামাজ আদায় করতে হবে। তবে দ্বিতীয় রাকাতে সিজদার পর তাশাহহুদ পড়তে হবে। দাড়িয়ে তৃতীয় রাকাত আবার শুরু করতে হবে। অন্য কথায়, কোমরে হাত রেখে (মহিলাদের জন্য বুকে হাত বাঁধতে হবে) শুধুমাত্র সূরা ফাতিহা পড়তে হবে। তারপর রুকু ও সিজদাহ করার পর শেষ বৈঠকে বসতে হবে। শেষ বৈঠকে তাশাহহুদ, দুরূদে ইব্রাহিম ও দোয়া মাসুরার পড়তে হবে। তারপর ডানে এবং বামে সালাম ফিরিয়ে নামাজ শেষ করতে হবে।

মাগরিবের দুই রাকাত সুন্নতঃ

মাগরিবের দুই রাকাত সুন্নতের নিয়ম মাগরিবের প্রথম দুই রাকাত ফরজের মত। নিয়তের মধ্যে সামান্য পার্থক্য আছে এবং দুই রাকাতের পর সালাম ফিরিয়ে নামায শেষ করতে হবে।

মাগরিবের দুই রাকাত নফলঃ

মাগরিবের দুই রাকাত নফল সুন্নতের নিয়মে পড়তে হবে। নিয়তের মধ্যে সামান্য পার্থক্য আছে এবং দুই রাকাতের পর সালাম ফিরিয়ে নামায শেষ করতে হবে।

নববহ্নি

মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত
মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত ও কি কি

Check Also

এশার নামাজ কয় রাকাত

এশার নামাজ কয় রাকাত ও কিভাবে পড়তে হয় জানুন রিস্তারিত

এশার নামাজ কয় রাকাত নামাজের মধ্যে এশার নামাজ ও ফজরের নামাজ বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এশার নামায …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *