রাজশাহী সিল্ক শাড়ির ইতিহাস

রাজশাহী সিল্ক শাড়ির রেশম এক ধরণের সূক্ষ্ম ও কোমল সুতা যা রেশম নামক পোকার গুটি থেকে তৈরী হয়। যে পদ্ধতিতে প্রাকৃতিক রেশম তৈরী হয় তাকে বলা হয় সেরিকালচার। রেশমই এ শিল্পের মূল উৎপাদন। রেশম পোকা পালনকে স্থানীয় ভাষায় পলুপালন বলা হয়। তুঁত চাষ ও পলুপালনকে একত্রে রেশম চাষ বলে। বর্তমানে বাংলাদেশে মালবেরি রেশম চাষ হয়।

রেশমের জন্ম

রেশমের জন্ম চীনে। ধারণা করা হয় চীনের চানতং প্রদেশে প্রথম রেশম আবিষ্কৃত হয় ৪৫০০ বছর পূর্বে। প্রথমে রেশমের কাপড় অভিজাত শ্রেণির জন্য সংরক্ষিত ছিল। দীর্ঘ দিন চীন রেশম চাষ পদ্ধতি গোপন রাখলেও পরে তা ভারতবর্ষসহ বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ে। মোগল আমল এবং ষোড়শ ও সপ্তদশ শতকের দিকে প্রচুর পরিমাণে রেশমের উৎপাদন হয়। যার অন্যতম জায়গা ছিল রাজশাহী, মুর্শিদাবাদ ও মালদহ অঞ্চলে।

রাজশাহী সিল্ক শাড়ির উপকরণ

রাজশাহী সিল্ক শাড়ির মূল উপকরণ রেশম কাপড়। প্রাচীন কাল থেকেই বাংলায় রেশমের চাষাবাদ হয়। তা থেকে কাপড় প্রস্তুত করত বাংলার সাধারণ জনগন। ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি বাংলার দেওয়ানি লাভের পর; নবান মুর্শিদকুলী খাঁর সৃষ্ট জমিদারি অঞ্চল গুলোকে জেলায় রূপান্তর করে ১৭৮৬ সালে। এর ফলে রাজশাহী জেলা হয়ে ওঠে। কারণ, সে সময় বা তার আগে থেকেই রাজশাহী ও তার আশেপাশের অঞ্চল রেশম চাষের জন্য বিখ্যাত হয়ে উঠেছিল। তবে কবে নাগাদ এই রেশম চাষ বাঙলায় শুরু হয় তা নিশ্চিত ভাবে বলা যায় না। হয়তবা এরও প্রায় কয়েকশত বছর আগে রেশমের চাষ শুরু হয়েছিলে এই বাংলায়।

বতর্মান রাজশাহী এবং ভারতের মুর্শিদাবাদ ও মালদহ ছিল রেশম চাষের প্রধান অঞ্চল। আর এই রেশমের ক্রেতা ছিল ইংরেজ, ফরাসি, ওলন্দাজ ও আর্মেনীয় ব্যবসায়ীরা। ১৬৫৮ সালে রেশমের সবচেয়ে বড় কুঠি স্থাপিত হয় ভাগীরথী তীরবর্তী কাশিমবাজারে। বিদেশী বণিকেরা উৎপাদিত এই সব রেশম থেকে সূতা ও অন্যান্য বস্ত্রাদি তৈরী করে ইউরোপে রপ্তানি করতো। এর মাধ্যমে এই রেশমের নাম হয় বেঙ্গল সিল্ক। পরবর্তীতে এটি রাজশাহী সিল্ক নামেও পরিচিতি লাভ করেছিল।

প্রাচীনকাল থেকেই রাজশাহী জেলা ভারতরর্ষের অন্য জেলর তুলনায় রেশম উৎপাদনে ও রপ্তানিতে শীর্ষে ছিল। সপ্তদশ ও অষ্টদশ শতাব্দীতে রাজশাহী বিখ্যাত হয়ে উঠেছিল এই রেশম ও তা থেকে তৈরী দ্রব্যের জন্য। সেই সময় রাজশাহীর বোয়ালিয়া ছিল উত্তরবঙ্গের একমাত্র বানিজ্যিক কেন্দ্র। বোয়ালিয়া বন্দরকে কেন্দ্র করে তুতের চাষ হতো বিশাল অঞ্চল জুড়ে।
রাজশাহী সিল্ক শাড়ির ইতিহাস
আরো পড়তে পারেন রয়েল এনফিল্ড- উচ্চ সিসি ও নান্দনিক ডিজাইন দিয়ে বাইকারদের মন জয়ের ইতিহাস

পদ্মা তীরবর্তী এই বোয়ালিয়ায় ওলন্দাজরা বানিজ্যিক কুঠি স্থাপন করেছিল রেশমের চাষকে কেন্দ্র করে। বাংলায় প্রচুর পরিমাণে রেশম চাষ হতো ফলে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে প্রচুর রপ্তানি করা হত। রাজশাহী অঞ্চলে গড়ে উঠেছিল রেশম সমৃদ্ধ শিল্প। ১৯৪৭ এ দেশ ভাগের পর রাজশাহীর সাথে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে রাজশাহীর সাথে থাকা মালদহের রেশম উৎপাদননকারী ঐতিহ্যবাহী থানা গুলো।

বাংলাদেশে সিল্কের প্রকারভেদ

মালবেরি সিল্ক

এটি সর্বোত্তম মানের রেশম যা ক্রয়ের জন্য উপলব্ধ। একে সফট সিল্কও বলা হয়। মালবেরি সিল্ক বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত এবং ব্যয়বহুল রেশম গুলোর মধ্যে অন্যতম। কারণ এই রেশমগুলি রেশম পোকা থেকে তৈরি করা হয়। মজার ব্যাপার হলো এই পোকা গুলোর তুঁত পাতা খাওয়া ছাড়া কোন কাজ নেই। দিন রাত চব্বিশ ঘন্টাই তাদের পাতা খাওয়াই কাজ। রেশমী পোকার খুব ছোট জীবন কাল কিন্তু তার পরিণাম অবশ্যই যোগ্য। মালবেরি সিল্ক বিছানা, শাড়ি, পাঞ্জাবি এবং যে কোনও ধরণের বিদেশী পোশাকের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত ও ক্রেতাদের কাছে পছন্দের।

এরি সিল্ক

এরি সিল্ক এর অপর নাম ক্যাস্টর পাতা। এই ধরনের রেশম উৎপাদনকারী পোকা তুঁত পাতার পরিবর্তে ক্যাস্টর পাতায় খায়। এরি সিল্ক ভারত এবং বাংলাদেশে এন্ডি সিল্ক নামেও পরিচিত। এন্ডি সিল্ক মালবেরি সিল্কের মতো নরম নয়। এন্ডি সিল্ক মালবেরি সিল্কের চেয়ে ভারী হওয়ায় জটিল নকশার সেলাইয়ের জন্য এ সিল্ক উপযোগী।

রাজশাহী সিল্ক শাড়ির ইতিহাস

তাসর সিল্ক

এ সিল্ক তুষার সিল্ক নামেও পরিচিত। এই কাপড়টি রেশম পোকা থেকে তৈরি করা হয়। এ সিল্ক দিয়ে শাড়ি ও শাল ছাড়াও গৃহসজ্জার সামগ্রী, বাড়ির প্রসাধন সামগ্রী, স্যুট এবং জ্যাকেট হিসাবে সবচেয়ে উপযোগী।

পরিশেষে

কয়েকশত বছরের ইতিহাস ও ঐতিহ্য পাড়ি দেওয়া এই রাজশাহী সিল্ক বিশ্ব ব্যাপী এক ঐতিহ্যের সৃষ্টি করেছে। অবশেষে চীনে জন্ম নেওয়া এই সিল্ক বাংলাদেশের জিআই (জিওগ্রাফিক্যাল ইন্ডিকেশন্স) পন্য হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে ২৬ এপ্রিল ২০২১। বিশ্ব মেধাস্বত দিবসে আনুষ্ঠানিক এ স্বীকৃতি দেয়া হয়। এ ফলে বিশ্বের মানুষ রাজশাহী সিল্ককে বাংলাদেশের পণ্য হিসেবে জানবে। এতে এই পণ্যের চাহিদা ও বাজার দর কষাকষির সক্ষমতা বিশ্ব বাজারে বাড়বে। তবে সরকারিভারে এর বাণিজ্যিক চাষাবাদ শুরু হলে একদিকে যেমন বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করবে পাশাপাশি দেশে নতুন কর্মসংস্থ্ন সৃষ্টি হবে।

আমাদের ফলো করতে পারেন নববহ্নি

Check Also

কনস্ট্যান্টিনোপল-জয়

উসমানীয়দের কনস্টান্টিনোপল বিজয়; এক অবিস্মরনীয় যুদ্ধের ইতিকথা

উসমানীয়দের কনস্টান্টিনোপল বিজয়; এক অবিস্মরনীয় যুদ্ধের ইতিকথা। অবিভক্ত রোমান সম্রাজ্যকে একত্রিত করে ; রোমান সম্রাট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *