বাংলাদেশের সংবিধানের সংশোধনী সমূহ এর বিস্তারিত আলোচনা

বাংলাদেশের বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি চাকুরি সহ বিসিএস পরীক্ষাায়

সংবিধানের সংশোধনী সমূহ

থেকে প্রশ্ন এসে থাকে। এখানে সংক্ষিপ্ত ও গুরুত্ব আকারে সংবিধানের সংশোধনী সমূহ এর তালিকা দেওয়া হয়েছে। আশা করছি এই লেখাগুলো আপনাদের কাজে দিবে।

সংবিধান সংশোধনী

প্রথম সংশোধনী:

গৃহীত হয়ঃ ১৫ জুলাই ১৯৭৩

বিষয়বস্তুঃ
• যুদ্ধঅপরাধী সহ অন্যান্য গণবিরোধীদের বিচার নিশ্চিত করা।
• সংবিধানের ৪৭নং অনুচ্ছেদে দুইটি উপ- অনুচ্ছেদের সংযোজন।

২য় সংশোধনী:

গৃহীত হয়ঃ ২০ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩

বিষয়বস্তুঃ
• সংবিধানের জরুরী অবস্থা ঘোষণার বিধান সংযোজন’
• সংবিধানের ৯(ক) ভাগ সংযোজন।

৩য় সংশোধনী

গৃহিত হয়ঃ ২৩ নভেঘর ১৯৭৪
বিষয়বস্তুঃ
• বাংলাদেশ ভারত সীমান্ত চুক্তি সীমান্ত চুক্তি [১৬মে১৯৭8] • সিটমহল বিনিময় অনুযোদন
• বেরুবাড়িকে ভারতের নিকট হস্তান্তর,

৪র্থ সংশোধনী:

গৃহীত হয়: ২৫ জানুযারী ১৯৭৫।
বিষয়বস্তুঃ
• সংসদীয় সরকার পদ্ধতির পরিবর্তে রাষ্ট্রপতি শাসিত সরকার পদ্ধতি চালু করণ।
• বহুদলীয় রাজনীতির পরিবর্তে একদলীয় রাজনীতি প্রবর্তন। (বাকশাল গঠন)
• রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় সংসদের মেয়াদ বৃকিরণ জাতীয় অংসদের আমিতকরণ।
• উপ রষ্ট্রপতির পদ সৃষ্টি
• সুপ্রীম কোটের বিচারকদের অপসারণ ক্ষমতা রাষ্ট্রপতির উপর নাস্ত।
Note: ১৯৯২ সলে সংবিধানের দাদ্বশ সংশোধনীর মাধমে এ সংশোধনীর উল্লেখযোগ্য দিক বাতিল করা হয়।

The Padma bridge paragraph For SSC/HSC 250 word
সংবিধানের সংশোধনী সমূহ

পঞ্চম সংশোধনী

গৃহীত হয়: ৬ এপ্রিল ১৯৭৯
বিষয়বস্তুঃ
• খন্দকার মোষক আহমেদ ও জিয়াউর রহমানের সামরিক শাসনের বৈধতা দান।
• এক দলীয় রাজনীতির পরিবর্তে বহুদলীয় রাজনীতি প্ৰবতন।
• সুপ্রীম কোটের বিচারকদের অপসারণ ক্ষমতা ইডিশিয় জুড়িশিয়াল কাউন্সিল এর উপর নাস্ত।
• সংবিধানে বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম সংযোজন
• সংবিধানের চার মূলনীতিতে পরিবর্তন।
Note: এ সংশাধনী ইন্ডেমনিটি অধাদেশ নামেড পরিচিত। এ সংশোধনীকে সংবিধানিক বিচ্যুতি হিসেবে অভিহিত করা হয়।

৬ষ্ঠ সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়: ৮ জুলাই ১৯৮১
বিষয়বস্তুঃ
• উপরাষ্ট্রপতি পদ হতে রাষ্ট্রপতি পদ নির্বাচনের বিধান নিশ্চিতকরণ।
• রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, ও উপমন্ত্রীর পদকে অলাভজনক পদ হিসেবে গণ্য করা।

৭ম সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়ঃ নভেম্বর ১৯৮৬
বিষয়বস্তুঃ
• হোসেইন মোহাম্মদ এরশাদ এর সামরিক শাসনের বৈধতা দান।
• সুপ্রিম কোটের বিচারকদের অবসর বয়স সীমা ৬২ থেকে ৬৫ বছরে বৃদ্ধি করণ

৮ম সংশোধনী

গৃহীত হয়ঃ ৭ জুন ১৯৮৮
বিষবস্তুঃ
• সংবিধানে বর্ণিত Bengali শব্দটি পরিবর্তিত করে Bangla করণ।
• রাজধানী ঢাকার ইংরেজী বানান Dacca থেকে Dhaka পরিবর্তন!
• রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ইসলামকে স্বীকৃতি দান।
• ৬টি বিভাগীয় জেলা শহরে হাইকোটের স্থায়ী বেঞ্চ স্থাপন।

সংবিধানের সংশোধনী সমূহ
সংবিধানের সংশোধনী সমূহ

৯ম সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়ঃ ১০ জুলাই ১৯৮৯
বিষবস্তুঃ
• রাষ্ট্রপতি পদের সাথে একই সময়ে উপরাষ্ট্রপতি পদের নির্বাচন অনুষ্ঠান।
• রাষ্ট্রপতি পদে কোন ব্যক্তিকে পর পর দুই মেয়াদে সীমাবদ্ধকরণ।

১০ম সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়ঃ ১২ জুন ১৯৯০
বিষবস্তুঃ
• রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ব্যাপারে সংবিধানের বাংলা ভাষ্য পরিবর্তন
• জতীয় অংসদে ৩০টি সংরক্ষিত আসন ১০ বছরের জন সংরক্ষণ।

১১ তম সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়ঃ ৬ আগস্ট ১৯৯১
বিষয়বস্তুঃ
• প্রধান বিচারপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদের অস্থায়ী ‘রাষ্ট্রপতি বা উপ-রাষ্ট্রপতি হিসেবে নিয়োগের বৈধতা দান
• অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি বা উপ-রাষ্ট্রপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদের স্বপদে ফিরে যাবার বৈধতা দান

দ্বাদশ সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়: ৬ আাস্ট ১৯৯১
বিষয়বস্তুঃ
• রাষ্ট্রপতি শাসিত সরকার পদ্ধতি বাতিল করণ।
• সংসদীয় সরকার পদ্ধতি পুনঃপ্রবর্তন।
• উপষ্ট্রপতি পদ বিলুপ্তকরণ
• জাতীয় সংসদের সদস্যদের ভোটে রাষ্ট্রপতি নিবাচন।”

১৩তম সংশোধনীঃ

গৃহিত হয়ঃ ১৭ মার্চ ১৯৯৬
বিষয়স্তুঃ
• নিদলীয় তত্বাবধারক সরকার ব্যবস্থা প্রবর্তন।
Note: এটি ছিল নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা। এর সরকারের সদস্য সংখ্যা ছিল ১১ জন। সরকারের প্রধান ছিলেন প্রধান উপদেষ্টা।

চতুদশ সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়ঃ ১৬মে ২০০৪
বিষয়বস্তুঃ
• রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর প্রতিকৃতি সংরক্ষণ।
• সুপ্রিম কোটের বিষরবদের অবসর বয়স সীমা ৬৫ থেকে ৬৭ বছরে বৃদ্ধি করণ
• পিএসসিচ চেরারমান ও সদস্যদের অবসর সময়সীমা বৃধি করণ!
• জাতীয় সংসদে ৪৫ টি আসন মহিলাদের জন্য সরক্ষিত ১০ বছরের জন্য বৃদ্ধি করণ
সংবিধানের সংশোধনী সমূহ

পঞ্চদশ সংশোধনীঃ

গৃহীত হয়: ৩০ জুন ২০১১
বিষয়বস্তুঃ
• ৭২ এর সংবিধানের মূল নীতি প্রবর্তন
• নিদলীয় তত্বাবধারক সরকার ব্যবস্থা বাতিল
• রাজনৈতিক সরকারের অধীনে নির্বাচন
• অবৈধ ক্ষমতা দখলকীদের জন্য সবোর্চ্চ শাস্তি
বঙ্গবন্ধুকে জাতির পিতা হিসেবে স্বীকৃতি
• সংবিধানে নতুন তিনটি তফসিল সংযোজন। (৫ম. ৬ষ্ঠ, ৭ম)
• সংবিধনে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চ এর ভাষণ, স্বাধীনতার ঘোষণা এবং মুজিবনগর সরকারের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র সংযোজন
• সংবিধানের মৌলিক বিষয়াবলী সংশোধন অযোগ্য।
• পরিবেশ অধিকারের স্বীকৃতি
• উপ উপজাতি, ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদাসের সংস্কৃতির সবজনীন স্বীকৃতি
• জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসন ৪০ থেকে ৫০ এ বৃদিধ করণ (

ষোড়শ সংশেধনীঃ

গৃহীতঃ ২৭সেটেম্বর ২০১৪
বিষয়বস্তুঃ
সুপ্রিম কোটের বিচারকদের অভিশংসন বা অপসারণ মতা জাতীয় সংসদের উপর ন্যাস্ত।

সপ্তদশ সংশোধনী:

গৃহীতঃ৮ জুলাই ২০১৮
বিষয়বস্তু:
জাতীয় সংসদে মহিলাদের জন্য ৫০টি সংরক্ষিত আসন ২৫ বছরের জন্য সংরক্ষণ।

সংবিধানের সংশোধনী সমূহ পড়ে আপনাদের কেমন লাগলো জানাতে ভুলবেন না। শেয়ার করে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন।

নববহ্নি

Check Also

পরিবেশ কাকে বলে

পরিবেশ কাকে বলে। পরিবেশ কত প্রকার ও কি কি

পরিবেশ কাকে বলে এমন জিনিস যা আমাদের চারপাশ তৈরি করে এবং আমাদের পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে …