ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো; ফ্রিল্যান্সিং কি

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

ফ্রিল্যান্সিং কি

ফ্রিল্যান্সিং হল একটি চুক্তিভিত্তিক পেশা যেখানে কোনো প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পাওয়ার পরিবর্তে, ব্যক্তি তার দক্ষতা এবং কাজের অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে ক্লায়েন্টকে সেবা প্রদান করে থাকে।

সহজ কথায়, ফ্রিল্যান্সিং হল যখন আপনি আপনার দক্ষতা, শিক্ষা এবং অভিজ্ঞতা ব্যবহার করে একাধিক ক্লায়েন্টের সাথে কাজ করেন এবং একজনের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ না থেকে বিভিন্ন কাজ গ্রহণ করেন। আপনি যে কাজগুলি করেন বা করবেন তা ক্লায়েন্টের চাওয়া অনুযায়ী সেগুলি প্রদান করা আপনার কাজের দক্ষতার উপর নির্ভর করে।

ফ্রিল্যান্সিং এর মানে এই নয় যে আপনি বাড়িতে থেকে কাজ করবেন। কাজের ধরন এবং ক্লায়েন্টের প্রয়োজনীয়তার উপর নির্ভর করে আপনাকে আপনার ক্লায়েন্টের অফিসেও কাজ করতে হতে পারে।
তবে এটা ঠিক যে ফ্রিল্যান্সাররা যে কাজগুলি সম্পাদন করে তার অনেকগুলি কোম্পানি বা ক্লায়েন্টদের জায়গায় তাদের উপস্থিতি ছাড়াই ইন্টারনেটের মাধ্যমে আদান প্রদান করে থাকে ।

এখন আসুন আপনি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে আপনার লক্ষ্য স্থির করা প্রয়োজন। আপনি কোন বিষয়ের উপর কাজ করতে চান তা আপনাকে স্থির করতে হবে। আপনার নির্দিষ্ট লক্ষ্য ছাড়া ফ্রিল্যান্সিং শুরু করা উচিত নয়।
পদ্মা সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান জেনে নিন;
প্রথমত , আপনাকে ক্লায়েন্টদের খুঁজে বের করতে এবং তাদের জন্য ব্যতিক্রমী কাজ করে নিজেকে উপস্থাপন করতে হবে – এবং প্রথম ধাপ হল আপনার নিজেকে বোঝা কেন আপনি ফ্রিল্যান্সিং এ আসবেন।

কেন আপনি প্রথম স্থানে একজন ফ্রিল্যান্সার হতে চান?

1. বিকল্প কিছু আয়ের উৎস সৃষ্টি করতে?
2. আপনি স্থায়ী সময়ের আয় করতে চান ?
3. কিংবা ফ্রিল্যান্সিং করে আপনি কত আয় করতে চান?

ফ্রিল্যান্সিংকিভাবে শিখবো
ফ্রিল্যান্সিংকিভাবে শিখবো
ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং এ যাওয়ার আগে, আপনাকে নিজের জন্য একটি ফ্রিল্যান্স ব্র্যান্ড সেট আপ করতে হবে। একই জন্য এই পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে পারেন –

1. আপনি কোন কাজগুলি ক্লায়েন্টকে অফার করবেন তা নির্ধারণ করুন
2. আপনার টার্গেট মার্কেট কোনটি তা নির্ধারণ করুন
3. আপনি যে প্ল্যাটফর্মগুলিতে (ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট) পরিবেশন করবেন সেগুলি খুঁজুন। তাদের সকলের জন্য একটি অভিন্ন ব্যবহারকারীর নাম চয়ন করুন। যা আপনাকে আপনার ব্র্যান্ডের পরিচয় তৈরি করতে সহায়তা করবে।
4. আপনার কাজের বিনিময়ে টাকার হার নির্ধারণ করুন
5. আপনার জন্য-নির্দিষ্ট পোর্টফোলিও প্ল্যাটফর্মগুলিতে একটি অনলাইন পোর্টফোলিও তৈরি করুন; যেমন ডেভেলপারদের জন্য GitHub, ডিজাইনারদের জন্য Behance ইত্যাদি। আমরা আপনাকে আপনার দক্ষতা এবং প্রতিভা প্রদর্শনের জন্য একটি ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার পরামর্শ দিব।
6. আপনার পরিষেবাগুলি বাজারজাত করুন: প্রথমত, সোশ্যাল মিডিয়ায় বাজার করুন, দ্বিতীয়ত, বিনামূল্যে বা খুব কম খরচে কিছু কাজ করুন (আরো ট্র্যাকশন পেতে সহায়তা করে), এবং ইমেল মার্কেটিং ব্যবহার করুন৷

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

এখানে কয়েকটি জনপ্রিয় সাইট দেয়া আছে যেগুলোতে আপনি ফ্রিল্যান্সিং কাজের জন্য চেষ্টা করতে পারেন:

Fiverr:

ফ্রিল্যান্স চাকরি খোঁজার জন্য বিশ্বের বৃহত্তম মার্কেটপ্লেস। আপনি যা করতে পারেন শুধু একটি অ্যাকাউন্ট পোস্ট তৈরি করুন, কয়েকটি লিঙ্ক যুক্ত করুন এবং আপনার কাজ শেষ।

99 Design:

আপনি যদি একজন ডিজাইনার হন তাহলে ফ্রিল্যান্সিং চাকরি খোঁজার একটি উপযুক্ত জায়গা।

Upwork:

আপওয়ার্ক একটি আরও পেশাদার দেখাচ্ছে ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস যেখানে আপনি আরও ব্যবসায়িক ক্লায়েন্ট পাবেন।

Freelancer.com:

Freelancer.com হল সবচেয়ে পুরানো ফ্রিল্যান্স কাজের মার্কেটপ্লেস যা আপনি আপনার প্রাথমিক বছরে বেছে নিতে পারেন যখন আপনার ফ্রিল্যান্স অভিজ্ঞতা কম বা কোনটাই থাকে না।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো
ফ্রিল্যাসিং ওয়েবসাইট ও এর সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আপনারা নিম্নের জায়গাগুলোতে সার্চ করতে পারেন।

1. Google search

2. Youtube

3. Udemy

4. Lynda.com

5. Khanacademy.com

Google search: গুগোল এ সার্চ করলে আপনি ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে অনেক ওয়েবসাইট পাবেন। যেখান থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে পারেন।
Youtube এর মাধ্যমে আপনি ফ্রিতে ফ্রিল্যান্সিং এর উপর অনেক টিউটোরিয়াল পাবেন। তা দেখে নিতে পারেন
Udemy হলো ফ্রিল্যান্সিং শেখার জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট। তবে এটা পেইড ওয়েবসাইট্ যার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট অর্থ প্রদান কতে হবে।

Lynda.com এটিও আরেকটি জনপ্রিয় ওযেবসাইট। ফ্রিল্যান্সিং এর বিভিন্ন কোর্স পাবেন এখানে। এটিও পেইড ওয়েবসাইট।

Khanacademy.com এখানে আপনার ফ্রিল্যান্সিং এর সাথে সম্পকৃত বিভিন্ন টিউটোরিয়াল পাবেন। ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

ফ্রিল্যান্সিংকিভাবে শিখবো
ফ্রিল্যান্সিংকিভাবে শিখবো
বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ রচনা; বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচনা
বর্তমান সময়ে ফ্রিল্যান্সিং এ লাভজনক কাজ গুলো হলোঃ

1.Content writing: বর্তমান সময়ে অনেক দেশী ও বিদেশী বিজনেজ কোম্পানি তাদের পণ্যের প্রচারণার জন্য আর্টিকেল লিখে থাকে। এজন্য তারা দক্ষ কনটেন্ট রাইটার খুজে থাকে। এই কাজ করে প্রচুর অর্থ আয় করা সম্ভব। প্রতিটি আর্টিকেল লেখার বিপরীতে আপনি ৫-২০ ডলার পেতে পারেন।

2. Web Design: অনেক বিজনেজ কোম্পানি তাদের ওয়েবসাইট ডিজাইন করিয়ে নিতে চান। এজন্য তারা দক্ষ লোক খুঁজে থাকে। এই কাজের মাধ্যমে আপনি নিজেকে স্বাবলম্বী করে তুলতে পরেন।

3 . Graphic Design: ফ্রিল্যাসিং এর সবচেয়ে বড় মার্কেট প্লেস হলো Graphic Design। অনেক কোম্পানি তাদের product; business এবং Website এর জন্য লোগো ডিজাইন করে চায়। ফ্রিল্যান্সার হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনি এ কাজ করতে পারেন।

4. Digital Marketing: বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রচুর চাহিদা রয়েছে অনলাইন মার্কেট প্লেসে। কোম্পানিগুলো তাদের বিজনেজ, প্রোডাক্ট গুলো অনলইনে প্রচার করার জন্য ফ্রিল্যান্সার হায়ার করে থাকেন।

5. App developer: আজকাল বিভিন্ন কাজে নানা ধরণের Android App বানানো হচ্ছে। এই App থেকে অনেকেই টাকা উপার্যনের করে থাকে। আবার App গুলো Develop করার জন্য অনেকে অ্যাপ ডিভলোপার হায়ার করে থাকে । যার মাধ্যমেও আয় করা যায়।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

ফ্রিল্যান্সিং কি
নববহ্নি

Check Also

অ্যাপল আইফোন ১৩ iphone 13 pro price

অ্যাপল আইফোন ১৩ দাম ; Apple iphone 13 pro max price

অ্যাপল আইফোন ১৩ আইফোনের নতুন ফিচারের (আইফোন ১৩, আইফোন ১৩ প্রো এবং আইফোন ১৩ প্রো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *